What Happens in Your First Visit to a Fertility Doctor?

IVF Dhakaবন্ধ্যাত্ব বিশেষজ্ঞের সাথে প্রথম সাক্ষাত্

আমাদের দেশে অনেকেই বন্ধ্যাত্বকে একটি রোগ বা অসুখ হিসেবে মেনে নিতে না চাইলেও প্রকৃতপক্ষে এটি একটি ব্যাধি এবং অনেক ক্ষেত্রেই এর নিরাময় সম্ভব। কোন মহিলা যদি জন্মনিয়ন্ত্রণের কোনো প্রকার প্রচেষ্টা ব্যতিরেকে কমপক্ষে এক বত্সর স্বামীর সাথে সহবাস করার পরও সন্তানধারণে ব্যর্থ হন, তবে এ অবস্থাকে বন্ধ্যাত্ব বলা হয়। তবে, পঁয়ত্রিশ বা তদূর্ধ্ব বয়সের মহিলাদের ক্ষেত্রে এ সময়সীমা হচ্ছে মাত্র ছয় মাস।

বন্ধ্যাত্বের চিকিত্সার প্রধান অন্তরায়গুলোর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে প্রথম পদক্ষেপটি নেয়া; আর তা হচ্ছে একজন বন্ধ্যাত্ব বিশেষজ্ঞের সাথে সাক্ষাৎ করা। আজকাল অধিকাংশ ক্ষেত্রে, পেশাগত কারণে প্রচণ্ড ব্যস্ততা এবং কোনো কোনো ক্ষেত্রে পরিবারকে পরিপূর্ণ করার প্রতি আগ্রহ ও মানসিক পরিপক্কতার অভাবই যে উপরোক্ত অবস্থার জন্য দায়ী, তা সহজেই বোধগম্য। এমনকি, কেউ কেউ আবার এ ব্যাপারে আদৌ কারো সাথে পরামর্শ করা উচিত্ হবে কিনা তা নিয়ে বিভ্রান্তিতে ভোগেন।

তাই, একজন বন্ধ্যাত্ব বিশেষজ্ঞ হিসাবে আমি মনে করি যে, এমন একজন বিশেষজ্ঞের কাছে যেয়ে কী কী ঘটতে পারে তা জানিয়ে দেয়ার মাধ্যমে অনেকের এই অকারণ অস্বস্তি দূর করা সম্ভব।

 আপনার প্রথম সাক্ষাতে যা যা ঘটতে পারে:

বন্ধ্যাত্বের কারণ যদিও অনেক হতে পারে, কিন্তু এর ফলাফল হিসেবে শেষ পর্যন্ত সেই এক হতাশাজনক পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হয় -সন্তানধারণে ব্যর্থতা। তাই, আপনার অবস্থা বা সমস্যা কী তা ভাল করে বোঝার জন্য কিছু প্রাথমিক পরীক্ষার প্রয়োজন হতে পারে। মনে রাখবেন, একটি সফল গর্ভধারণের জন্য অবশ্যই চারটি মৌলিক জিনিসের প্রয়োজন-

  • একটি সুস্থ জরায়ু যাতে কোন টিউমার নেই,
  • সুস্থ্য ওভারিস বা ডিম্বাশয়সমূহ যেগুলোতে কোনো সিস্ট বা টিউমার নেই এবং এগুলোর মধ্যে ভবিষ্যতে প্রজননের জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণে রিজার্ভ থাকা আবশ্যক,
  • উভয় ফ্যালোপিয়ান টিউবই প্যাটেন্ট বা খোলা হতে হবে, এবং
  • স্বামীর বীর্য বিশ্লেষণের ফলাফল স্বাভাবিক হতে হবে।

বিশেষজ্ঞের চেম্বারে রিপোর্ট করার পর স্বামী এবং স্ত্রী উভয়ের কাছ থেকেই তাদের অতীতে হওয়া বিভিন্ন চিকিত্সা, অস্ত্রপোচার এবং অনান্য ব্যক্তিগত তথ্যাদির একটি বিস্তারিত ইতিহাস নেওয়া হয়। জরায়ু এবং ডিম্বাশয়গুলোর অবস্থা জানার জন্য প্রতিটি মহিলা রোগীকেই একটি বেসলাইন ট্রান্সভ্যাজাইনাল আলট্রাসনোগ্রাফি স্ক্যান করা হয়। আর,তাদের স্বামীদের অবস্থা বোঝার জন্য একটি সাধারণ বীর্য বিশ্লেষণ পরীক্ষা করার পরামর্শ দেওয়া হয়। সাধারণত অন্য আর কোনো পরীক্ষার প্রয়োজন হয় না, বিশেষত যেসব রোগীদের মাসিক নিয়মিত, তাদের ক্ষেত্রে তো নয়ই।

বিশেষ পরিস্থিতি (আমার মতে, প্রায় ৩০% ক্ষেত্রে):

বিশেষ পরিস্থিতিতে, যেমন, কোনো রোগীর বয়স যদি পঁয়ত্রিশের অধিক হয় বা তার মাসিক যদি অনিয়মিত হয়, সেক্ষেত্রে তার এই অনিয়মিত মাসিকের কারণ নির্ণয় করার জন্য বা তার ডিম্বাশয়ের রিজার্ভের অবস্থা জানার জন্য অন্যান্য কয়েকটি রক্ত পরীক্ষা করতে হতে পারে।

কোনো রোগীর ফ্যালোপিয়ান টিউব যদি বন্ধ বলে মনে হয় বা আসলেও যদি এই টিউব বন্ধ হয়ে থাকে, সেক্ষেত্রে সেই টিউবের অবস্থা জানার জন্য একটি ল্যাপারস্কোপি বা হিস্টেরোসালপিনগোগ্রাফি করার পরামর্শ দেওয়া হতে পারে।

বীর্যের কিছু কিছু সমস্যা শুধুমাত্র ওষুধ প্রয়োগের মাধ্যমে সমাধান করা সম্ভবপর হয় না। সেই ক্ষেত্রে, রোগীকে ইন্ট্রাইউটেরাইন ইনসেমিনেসান (IUI) -এর পরামর্শ দেওয়া হতে পারে।

সাধারণত, চিকিত্সার সব রকম প্রোটোকল শেষ হওয়ার পর রোগীকে “ইন ভিট্রো ফার্টিলাইজেসান”(I.V.F/ টেস্ট টিউব বেবি)-এর পরামর্শ দেওয়া হয়। কিন্তু, এ্যাজোস্পারমিয়া (বীর্যে কোন শুক্রাণু বা স্পারমেটোজোয়া না পাওয়া),  গুরুতর  অলিগোএ্যাসথেনোস্পারমিয়া (শুক্রাণুর সংখ্যা ও সক্রিয়তা খুবই কম হওয়া), উভয় ফ্যালোপিয়ান টিউব বন্ধ থাকলে বা ব্যাপক এন্ডোমিট্রিওসিস-এর মতো সমস্যা থাকলে প্রথম সাক্ষাতেই আই.ভি.এফ-কেই একমাত্র চিকিত্সা পদ্ধতি হিসেবে পরামর্শ দেওয়া হতে পারে।

অবশ্য, এই বিশেষ অবস্থাগুলো খুব কম সংখ্যক রোগীর ক্ষেত্রে পাওয়া যায়। সৌভাগ্যজনকভাবে, বর্তমানে বাংলাদেশেই এই সব ধরনের চিকিত্সা সুবিধা বিদ্যমান। সুতরাং, আপনার জীবনকে পরিপূর্ণ করে তুলতে সবরকম অকারণ দ্বিধা-দ্বন্দ্ব ঝেড়ে ফেলে শীঘ্রই একজন উপযুক্ত বন্ধ্যাত্ব বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নেয়ার চেষ্টা করুন।

What Happens in Your First Visit to a Fertility Doctor?

Many people find it difficult to accept that infertility is a medical disease, defined as the inability to conceive after 12 months of unprotected intercourse (after 6 months for women ≥35 years of age).

One of the greatest problems is making the first step: Scheduling an appointment to see an infertility specialist. This is understandable as most of them are professionally very busy in this age and lacks maturity in their attitude towards completing their families. Many of them are even confused about whether they should consult someone or not.

Therefore, as an Infertility Specialist, I think it might be comforting to know the things that would likely occur at  to an Infertility Specialist.

Your First Visit: What Happens?

Infertility may be the result of many different conditions, all ending up in that same frustrating situation: no pregnancy. To get a better understanding of your individual condition, some initial testing may be required.

Remember, you need four basic things for a successful conception.

1.    You need a healthy uterus with no tumors within it

2.    Healthy ovaries with no cysts/tumors within it and ovaries must have adequate quantities of reserve for future reproduction.

3.    Both fallopian tubes must be patent/open &

4.    Husband’s semen analysis report should be normal

After reporting to the chamber, a detailed personal, medical & surgical history of both husband & wife is taken. A baseline Transvaginal Ultrasonography scan is carried out for each & every patient to assess the uterus and ovaries. A simple semen analysis is advised to assess the husbands status. No other tests are usually requires especially if the patients period is regular.

Special circumstances(around 30% cases, I Think)

In special circumstances, where you have an irregular period or your age is more than 35 yrs, you may have to do several blood tests to determine the cause of irregular periods or to assess your ovarian reserve.

In case of proven/suspicious tubal blocks, preferably a laparoscopy or hysterosalpingography may be advised to assess your tubes.

Some of the semen parameters are not treatable by medicines. In that case, you may be advised to go for an Intrauterine Insemination(IUI).

Generally, In Vitro Fertilization(IVF:Test Tube Babies) is advised after completion of all treatment protocols. However, it may be advised in the very first visit as the only line of treatment in very few special cases like azoospermia(When no spermatozoa is found on your husbands semen), severe oligoasthenospermia(where the number & motility of sperms are too low), bilateral tubal blocks or in extensive endometriosis.

Fortunately, all types of treatment modalities are now available in Bangladesh. So, try to consult a suitable Infertility Specialist without hesitation to make your life complete.

This entry was posted in FAQ, Text and tagged , , , , , , , , , . Bookmark the permalink.

2 Responses to What Happens in Your First Visit to a Fertility Doctor?

  1. shorna says:

    I m married since nov 2011. now I m 25 years old. weight 75 kg.height 5-2″. we are trying to get baby since 2 years. last year we have meet an gyni specialist in sylhet . before marraige my means is irregular last means before 4 month by take drug normens. now still off. I have migraine problem. we want to get baby. what I have to do now? I m depressed? please help me.

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s