Details of Intrauterine Insemination (IUI) Treatment

প্রশ্ন ১: ইন্ট্রাইউটেরাইন ইনসেমিনেসান (I.U.I) কী? আই.ইউ.আই কেন এবং কিভাবে করা হয়?

উত্তর: প্রথমেই বলে নেই, সাধারণত কী কী কারণে আমরা আই.ইউ.আই করে থাকি এবং এর সুবিধাগুলো কী। আই.ইউ.আই মূলত পুরুষ সমস্যার কারণে করা হয়ে থাকে। এই পদ্ধতিতে প্রথমে সিমেন সংগ্রহ করা হয় এবং এই সিমেনের মধ্যে যেসব স্পারমেটোজোয়াগুলো নড়া-চড়া করছে না এবং যেগুলোর গঠন ও আকৃতি খারাপ,  সেগুলোকে আই.ইউ.আই ল্যাবে মেশিনের সাহায্যে সেন্ট্রিফিউগেসান, সুইম-আপ ইত্যাদি পদ্ধতির মাধ্যমে আলাদা করে ফেলা হয়। এরপর, বাকী স্পারমেটোজোয়াগুলোকে কালচার মিডিয়ায় রেখে এদের নড়া-চড়া বৃদ্ধি করা হয়। এরপর, একে আই.ইউ.আই ক্যাথারটারের সাহায্যে মহিলার জরায়ুর একটি নির্দিষ্ট অংশে প্রবেশ করানো হয়। সুতরাং, আই.ইউ.আই-এর মাধ্যমে যাদের সিমেনে শুক্রাণুর সংখ্যা কম বা শুক্রাণুর নড়া-চড়া কম- এই দুই সমস্যাকেই বাই-পাস করা যায়। ফলে, গর্ভধারণের সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

আবার লক্ষণীয় যে, আই.ইউ.আই কখনও কখনও মহিলা বন্ধ্যাত্বের ক্ষেত্রেও ব্যবহৃত হতে পারে। যেমন, পরিস্থিতি যদি এমন হয় যে, মহিলাটিকে বেশ কিছুদিন যাবৎ চিকিত্সা করা হচ্ছে, তার ল্যাপারস্কোপি ভালো, তার স্বামীর সিমেন এ্যানালাইসিস রিপোর্টও ভালো, কিন্তু, এরপরও কেনো তাদের বাচ্চা হচ্ছে না, তা বোঝা যাচ্ছে না-এমন ক্ষেত্রে সেকেন্ডারি বা দ্বিতীয় ধাপের  চিকিত্সার একটা পর্যায়েও আই.ইউ.আই হতে পারে। যেমন, এ্যান্টিস্পার্ম এ্যান্টিবডি বা সার্ভিক্যাল মিউকাস বা অন্য কোনো কারণে গর্ভধারণ না হলে আই.ইউ.আই করা হতে পারে। আবার, একটপিক প্রেগন্যান্সির কারণে কোনো মহিলার এক বা একাধিক টিউব যদি কেটে ফেলা হয়, সেক্ষেত্রেও গর্ভধারণের সম্ভাবনা বাড়ানোর জন্য অনেক সময় আই.ইউ.আই করা হতে পারে।

আমাদের দেশে আমরা অনেক সময় সেসব দম্পতির ক্ষেত্রে আই.ইউ.আই করে থাকি, যারা তাদের বিবাহিত জীবনে খুব সময়ই একসাথে বসবাস করেছেন; যেমন, স্বামী হয়ত চাকুরীর কারণে বিদেশে থাকেন এবং সেকারণে স্বামী-স্ত্রী একত্রে থাকতে পারেন না। এদের ক্ষেত্রেও আই.ইউ.আই করে গর্ভধারণের সম্ভাবনা বাড়ানো সম্ভব।

প্রশ্ন ২: আই.ইউ.আই করার জন্য রোগীকে এ্যানেস্থেসিয়া করার প্রয়োজন হয় কী?

উত্তর: আই.ইউ.আই করার জন্য রোগীকে এ্যানেস্থেসিয়া বা অজ্ঞান করার প্রয়োজন হয় না। এবং, এটি রোগীর জন্য কষ্টদায়কও নয়। বিশ্বব্যাপী  আই.ইউ.আই একটি আউট-পেশেন্ট প্রসিডিউর। ‘রিট্রিভড সিমেন’ বা ‘পোস্ট ওয়াশ সিমেন’ আই.ইউ.আই ট্রান্সফার রুমে, এমনকি সাধারণ গাইনোকোলোজিস্টের চেম্বারেও মহিলার জরায়ুতে ট্রান্সফার করা সম্ভব।

প্রশ্ন ৩: আই.ইউ.আই কী খুব ব্যয়বহুল একটি পদ্ধতি?

উত্তর: না, আই.ইউ.আই মোটেও ব্যয়বহুল কোনো পদ্ধতি নয়। এবং, এর সুবিধা হচ্ছে এই যে, এটি রোগীকে বারবার করা যেতে পারে।

প্রশ্ন ৪: একই রোগীকে আই.ইউ.আই কতবার করা যেতে পারে?

উত্তর: সাধারণত আই.ইউ.আই করে যেসব গর্ভধারণ হয়, তার বেশির ভাগই হয় প্রথম তিন থেকে চার বারের মধ্যেই। সুতরাং, তিন থেকে চার বার আই.ইউ.আই করার পরেও যদি কোনো রোগী গর্ভধারণ না করে থকেন, তবে তার ক্ষেত্রে আই.ইউ.আই ফলপ্রসূ হওয়ার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। তাই, আমার চেম্বারে আমি তিন থেকে চার বারের বেশি আই.ইউ.আই করা পছন্দ করি না। তবে, ব্যতিক্রম কিছু ক্ষেত্রে বারবার চেষ্টা করা যেতে পারে।

 

Video | This entry was posted in TV InerView, Video and tagged , , , , , , , , , , , . Bookmark the permalink.

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s